ব্যবহৃত টি-ব্যাগের সদ্ব্যবহার

আমরা সবাই চা খাওয়ার পর টি-ব্যাগ ফেলে দেই। কিন্তু এই ব্যবহৃত টি-ব্যাগটিকে লাগানো যাবে বিভিন্ন কাজে। রূপচর্চার থেকে শুরু করে ঘরের নানা কাজে ব্যবহার করা যাবে এটি। চলুন জেনে নেই কী কী কাজে ব্যাবহার করা যাবে এটি, মাথা ব্যথা ও চোখের ফোলা ভাব কমায় : ফেলে দেয়া টি-ব্যাগ পানি দিয়ে ধুয়ে ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে নিন। মাথা ব্যথা করলে কিংবা চোখ ফুলে উঠলে ঠাণ্ডা টি-ব্যাগটি চোখের উপর রেখে শুয়ে থাকুন। এতে ক্লান্ত ভাব দূর হয়ে যাবে। ত্বকের পোড়া দাগ দূর করা : ত্বকের পোড়া দাগ দূর করার জন্য অনেকগুলো ব্যবহৃত টি-ব্যাগ বাথটাব কিংবা বালতির গোসলের পানিতে ১ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন।

সেই পানি নিয়মিত গোসলের পর গায়ে ঢাললে পোড়া দাগ দূর হয়ে যাবে। চুলের যত্নে : চুলের কন্ডিশনার হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে টি-ব্যাগ। সামান্য গরম পানিতে টি-ব্যাগ ভিজিয়ে, শ্যাম্পু করার পর মাথায় দিন। এতে চুল থাকবে ঝলমলে ও উজ্জ্বল। পোকার কামড় বা ক্ষত অংশে: কাটা স্থানে ঠাণ্ডা টি-ব্যাগ চেপে ধরুন। বিশেষ করে ছেলেদের শেভ করার সময় গাল কেটে যায়, তখন এটা ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া পোকার কামড়, র্যা শ বা চুলকানির অংশে টি-ব্যাগ রাখলে আরাম পাওয়া যায়। সার হিসেবে: টি-ব্যাগের চা পাতা ফুলের টবে কিংবা গাছের গোড়ায় দিন। জৈবিক সার হিসেবে দারুণ কাজ করবে এটি। দুর্গন্ধ রোধে: হাতে পিঁয়াজ বা রসুনের গন্ধ হলে টি-ব্যাগ ঘষুন। জুতার বাজে গন্ধ দূর করার জন্য টি-ব্যাগ জুতার ভিতরে রাখুন। এতে দুর্গন্ধ নিমিষেই চলে যাবে। তৈলাক্তভাব দূর করতে: গ্লাস, প্লেট বা হাঁড়ি-পাতিল থেকে তেল চিটচিটে ভাব দূর করতে, গরম পানিতে টি-ব্যাগ দিয়ে সারারাত ভিজিয়ে রাখুন। সকালে উঠে দেখবেন তৈলাক্তভাব কেটে গেছে।