হঠাৎ করে ছাত্র ছাত্রীদের উপর চাপিয়ে দেয়া হলো নির্বাচনী পরিক্ষা

রমজানের ২দিন আগে শেষ হয়েছিল বরিশাল সরকারি বি এম কলেজের অনার্স ১ম বর্ষের ২য় ইনকোর্স পরিক্ষা। হঠাৎ করে গত কলকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে কিছু ছাত্র ছাত্রীরা জানতে পারে ২৩ তারিখে তাদের নির্বাচনী পরিক্ষা শুরু হবে। এমনটা শোনার পর কিছু সংখ্যক ছাত্র ছাত্রীরা ছুটে যায় কলেজ ক্যাম্পাসে তারা চাইছিল এর তিব্র আন্দোলন করতে। কিন্তু তা আর হলো না। কারন ২য় ইনকোর্স শেষে সব ছাত্র ছাত্রীরা হোস্টেল ছেড়ে চলে যায় বারিতে তাই কলেজে আসতে পারেননি অনেক ছাত্র ছাত্রী। তাই যারা কলেজে গেছিল তারা পরিক্ষার রুটিন নিয়ে চলে আসে বারিতে ২৩ তারিখে নির্বাচনী পরিক্ষা কিন্তু পরিক্ষার সময় সূচী সম্পূর্ণ রুপে এখনো প্রকাশ করেনি কলেজ কর্তৃপক্ষ। শুধু বলা হয়েছে প্রথম দিন স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস আর শেষের দিন সমাজকর্ম পরিচিতি। বাকি বিষয় গুলো পরে জানিয়ে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন দর্শন বিভাগের প্রফেসর মোঃ আবুল হাসানাত । তবে এই পরিক্ষায় কোনো ছাত্র ছাত্রীরাই ছিলনা এক মত। হঠাৎ এমন নোটিশ শুনার পর ছাত্র ছাত্রীরা চমকে যায়। তাদের কাছে পুরো ব্যাপারটা একটা গল্পের মত। এই ব্যাপারটা নিয়ে দর্শন বিভাগের এক ছাএ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে বলেছেন মেয়ের বিয়ে ঠিক হলো। অথচ সেই
মেয়েকেই বলা হলো না তার
বিয়ে।
মেয়েতো হেসে খেলে দিন
নিপাত করতেছে।
আর হঠাৎ করেই বলা হলো কাল
তোর বিয়ে।
এ যেন ছেলে বেলার পুতুল বউ
খেলার মতো।
পরিক্ষার দিন এ নিয়ে ছাত্র ছাত্রীরা কলেজ ক্যাম্পাসে করতে পারে তিব্র আন্দোলন।

মোঃ রবিউল ইসলাম
স্থানীয় রিপোর্টার. প্রভাত বাংলা
বরিশাল